ন্যূনতম বিনিয়োগে ও স্বল্প স্থানে লাভজনক মৎস্য চাষের প্রকল্প “বায়োফ্লেক”, ঝাড়গ্রামে হয়ে গেল উদ্বোধন

.

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঝাড়গ্রাম, ৭ সেপ্টেম্বর : পরিবেশ গবেষণা সংস্থা “ট্রপিক‍্যাল ইনস্টিটিউট অফ আর্থ এন্ড এনভায়রনমেন্টাল রিসার্চ” (টিয়ার) এর পরিকল্পনা ও পরামর্শে জীবিকার স্বনির্ভরতা ও স্থায়ী অর্থনৈতিক ব‍্যবস্থা গড়ে তোলার লক্ষ্যে, এক বিজ্ঞান ভিত্তিক পরিকল্পনা ও প্রকল্পের সূচনা হতে চলেছে, তা হল বায়োফ্লোক মৎস্য চাষ। মূলতঃ বাড়ির উঠানে অথবা ছাদে দশ বর্গফুট জায়গা জুড়ে এই প্রকল্পটি গড়ে তোলা যায়।

thebengalpost.in
বায়োফ্লেক মৎস্য চাষ :

.

যেকোনো ব্যক্তি বাড়িতে থেকে এই ধরনের জীবিকার সঙ্গে যুক্ত হতে পারেন। পাশাপাশি অবসরকালীন সময় কাটানোর জন্যও এই ধরনের প্রকল্প আদর্শ। ঝাড়গ্রাম শহরের বাছুরডোবা এলাকায় অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক প্রদীপ কুমার চক্রবর্তী ও অধ্যাপক সুপ্রকাশ দাসের ব্যক্তিগত উদ্যোগে এবং ‘টিয়ার”-এর ব্যবস্থাপনায় বাড়ির উঠোনে ও ছাদে ২টি বায়োফ্লোক মৎস্য চাষের কেন্দ্র গড়ে তোলা হলো। প্রায় আড়াই হাজার কই মাছ প্রতি ট্যাংকে প্রতিপালনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। চার মাস বাদে প্রতি ট্যাঙ্ক থেকে প্রায় দুই কুইন্টাল মাছ সংগ্রহ করা যাবে। এক একটি ফার্মের প্রাথমিক খরচ প্রায় ৪০০০০ টাকা। বছরে তিনবার মাছ সংগ্রহ করা যাবে এই ফার্মগুলিতে। “টিয়ার” এর কর্মকর্তাদের বক্তব্য হলো এই প্রকল্পের মাধ্যমে দেশি কই, মাগুর, সিঙ্গী,তেলাপিয়া,সরপুঁটি,ভেটকি, গুলশা টেংরা সহ পাবদার মতো মাছ চাষ করা যাবে। সংস্থার পক্ষ থেকে পরামর্শদাতা ও প্রশিক্ষক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, টিয়ার সম্পাদক তথা অধ্যাপক ডঃ প্রণব সাহু । এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক সুপ্রকাশ দাস এবং শরৎ চ্যাটার্জী। অধ্যাপক সাহু এই প্রসঙ্গে বলেন যে, “এটি ন্যূনতম ব্যয়ে় অধিক লাভজনক একটি প্রকল্প এবং এই প্রকল্প সারা বছর ধরে স্থায়ী অর্থনৈতিক ব্যবস্থার মধ্যে যুক্ত হতে পারবে।”

thebengalpost.in
বায়োফ্লেক মৎস্য চাষ :

.
.

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে